রোজা

রোজার সংক্ষিপ্ত বিবরন

সাওম বা সিয়াম আরবি শব্দ । বাংলা ভাষায় ব্যবহ্রত রোযা মুলত ফারসি শব্দ । সাওম অর্থ বিরত থাকা , দূরে থাকা , কঠোর সাধনা , অবিরাম চেষ্টা ও আত্ম সংযম । ইসলামী পরিভাষায় সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত নিয়তের সঙ্গে পানাহার ও সকল প্রকার যৌনসম্ভোগ থেকে বিরত থাকাকে রোযা বলা হয় । প্রিয় নবী রাসুল ( সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ) হিজরতের পর মদিনার ইহুদীদের মধ্যে আশুরার রোযা পালন করতে দেখে মুসলমানদেরকে উক্ত দিনের রোযা পালন করতে নির্দেশ দেন । হিজরতের আঠারো মাস পর , ‘কিবলাহ’ পরিবর্তনের পরে শাবান মাসে রমযানের রোযা ফরয হবার নির্দেশ সম্বলিত আয়াত নাযিল হয় । তখন থেকে আশুরার রোযা পালনের অপরিহার্যতা নাকচ হয়ে যায় । প্রত্যেক বয়ঃপ্রাপ্ত , সুস্থ , মুকীম ও সুস্থ মস্তিস্ক সম্পন্ন মুসলিম নর-নারীর ওপর রমযানের রোযা ফরয । সঙ্গত কারনে উক্ত মাসে রোযা না রাখতে পারলে পরবর্তী সময় তা ক্বাযা করা ফরয । তাছাড়া কাফফারা আদায়ের ও বিধান রয়েছে । মানুষের আত্মিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে রোযা অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে ।

১ / হে ইমানদারগণ ! তোমাদের জন্য রোযা ফরয করা হয়েছে , যেমন ফরয করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর । আশা করা যায় তোমাদের মধ্যে তাকওয়ার গুন ও বৈশিষ্ঠ্য জাগ্রত হবে । ( ২-সুরা বাকারাঃ ১৮৩ )

About the author

islamiclife@24

Leave a Comment